চিকেন ফ্রাই

চিকেন ফ্রাই রেসিপি – নিমিষেই তৈরি করুন মজাদার চিকেন ফ্রাই

স্বাস্থ্য সম্মত চিকেন ফ্রাই রেসিপি বানানের সহজ কৌশল নিয়েই আজকের লেখা। চিকেন ফ্রাই অন্যান্য চিকেন রেসিপির মত আমাদের দেশে অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি মুখরোচক খাবার।অনেকে বাসায় সচারচর এটি তৈরী করে থাকেন।কিন্তু তার সংখ্যা হাতে গোনা।


অধিকাংশ মানুষ চিকেন ফ্রাই অর্ডার করে খান। যার ফলে অনেক সময় খাবার স্বাস্থ্যসম্মত হয়না।তাই আমাদের আজকের আর্টিকেলটি মূলত চিকেন ফ্রাই রেসিপি নিয়ে।চলুন দেখে নেওয়া যাক মাত্র কয়েক ঘন্টার ব্যাবধানে। ঘরোয়া পরিবেশে কিভাবে এটি তৈরী করা যায়?

মনে রাখবেন স্বাস্থ্য সম্মত খাবারের জন্য উপকরণ খুব গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে। ভালো উপকরণ হলে ভালো খাবার।আর খারাপ উপকরণ তো ভেজাল খাবার। সেই সাথে উপকরণের উপর খাবারের মজাও নির্ভর করে।তাই চিকেন ফ্রাই রেসিপি বানাতে সবসময় সেরা উপকরণটি বাছাই করুন।

চিকেন ফ্রাই রেসিপি উপকরণঃ

সচারচর চিকেন ফ্রাই করতে হলে ব্রয়লারের মাংশকে বেশী প্রাধান্য দেওয়া হয়ে থাকে।তবে অনেকে ব্রয়লারের মাংশ খাননা।তারা দেশী বা অন্য জাতের মুরগী দিয়ে চেষ্টা করতে পারেন।তবে তাহলে তা ফ্রাইড চিকেন আসল মজা থাকবে না।

এমনিতেও দেশী মুরগী অনেক টেন্ডারী হয়েথাকে।সহজে সেদ্ধ হয়ে চায় না। প্রথম দিকে গরম পানিতে সেদ্ধ করে নিতে পারেন।

  • ব্রয়লার মুরগী ১৬ পিস করে কেটে নেয়া,
  • আদা বাটা -২ চামচ,
  • রসুন বাটা -২ চামচ,
  • পেয়াজ বাটা-২ চামচ,
  • মরিচ গুঁড়া-২ চামচ,
  • হলুদ গুঁড়া-২ চামচ,
  • ধনে গুঁড়া-২ চামচ,
  • লবণ -স্বাদ মতো,
  • গোল মরিচ গুঁড়া-২ চামচ,
  • টেস্টিং সল্ট,
  • ভিনেগার-১ চামচ,
  • চিনি , দুধ-১ কাপ,
  • তেল ইত্যাদি উপকরণ চিকেন ফ্রাই র জন্য রেডি রাখুন।

আমাদের নতুন সাইট ভিসিট করুন!

চিকেন ফ্রাই রেসিপি প্রস্তুত প্রণালীঃ

প্রথমে একটি কাঁটা চামচ দিয়ে মুরগীর প্রত্যেকটি পিস ভালো ভাবে কেচে নিন।অতপর তাতে আদা,রসুন,পেয়াজ বাটা , মরিচ বাটা/গুড়ো,হলুদ গুড়ো,ধনে,লবন,চিনি দিয়ে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন।অবশ্যই মুরগীর পিসগুলো ভালো ভাবে কেঁচে নিবেন।যতো ভাবে করে সেগুলো কেঁচে নেওয়া হবে ততোভালো ভাবে আপনার চিকেন পিসগুলো ম্যারিনেট হবে আর খেতে ততোটাই মজাদার হবে।কাজেই এই প্রসেসটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এক কাপ দুধে এক চামচ ভিনেগার মিশিয়ে একটি ব্যাটার তৈরী করুন।সচারচর দুধে ভিনেগার মেশালে দুধ কেটে যায়।পুরো মিশ্রনটি এখানে লাগবে।

এখন ব্যাটারটাকে ম্যারিনেট করে রাখা মাংশের টুকরোতে মিশিয়ে ২ ঘন্টার জন্য রেখে দিন।দুই ঘন্টা পর প্রত্যেক পিস চিকেন ফ্রাই ডুবো তেলে ভাজতে হবে।দারুন সোনালী বর্ণ ধারণ করলে নামিয়ে নিন।

গরম গরম চিকেন ফ্রাই পরিবেশন করুন চিলি সস বা অন্য সস এর সাথে।বিকেলের নাস্তার জন্য জনপ্রিয় এই খাবার সব বয়সের পছন্দের।

কেএফসি স্টাইলে চিকেন-ফ্রাই

উপকরণ আর ভাজার পদ্ধতি

যারা চিকেন ফ্রাই নিয়মিত খান বা খেতে পছন্দ করেন তারা জীবনে একবার হলেও কে এফ সির চিকেন ফ্রাই খেয়েছেন।যা মানে আর স্বাদে অন্য সব চিকেন ফ্রাই তৈরি পদ্ধতি থেকে সম্পূর্ণ আলাদা।এর জন্য বিশেষ ভাবে উপকরণ আর ভাজার পদ্ধতি খেয়াল রাখতে হবে।তাই ভাজার পূর্বে অবশ্য ই রেসিপি ভালো করে পড়ে নিবেন।

চিকেন ম্যারিনেট এর উপকরণ

  • চামড়া সহ চিকেন ১০ পিস
  • রসুন বাটা ১টেবিল চামাচ
  • আদা বাটা ১ টেবিল চামচ
  • সয়া সস ( লাইট) ২ টেবিল চামচ
  • ফিস সস ১ টেবিল চামচ
  • লবণ পরিমান মতো
  • কালো গোলমরিচ ১ চা চামচ
  • মিক্সড হার্ব ১/২ টেবিল চামচ
  • ময়দার কোটিং এর জন্য প্রয়োজনঃকর্ণফ্লাওয়ার ১/২ কাপ
  • ময়দা ৩ ১/২ কাপ
  • পাপড়িকা পাউডার ১ টেবিল চামচ
  • সাদা গোলমরিচ গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ
  • মরিচ গুঁড়ো ১/২ টেবিল চামচ
  • লবণ স্বাদ অনুযায়ী
  • ভাজার জন্য রান্নার তেল
বাটার মিল্ক তৈরি
  • বাটার মিল্কের জন্য লাগবেঃফুলক্রিম দুধ ১ কাপ
  • সাদা সিরকা ১ টেবিল চামচ
  • ডিম একটি

ভাজার পদ্ধতিঃ

ধাপ১ঃ

প্রথমেই একটি পাত্রে চিকেন নিন। তাতে আদা,রসুন,সয়া সস ও ফিস সস যোগ করুন।গোলমরিচ ও লবণ দিন।সবশেষে মিক্সহার্ব দিয়ে তা ভালো করে মিশিয়ে নিন।মনে রাখবেন সস এ লবন থাকে তাই লবণ স্বাদমতো নিবেন।

বাটার মিল্ক তৈরি করতে অন্য পাত্রে তরল ফুলক্রিম দুধ নিন। তাতে সিরকা যোগ করুন।সিরকার না থাকলে লেবুর রসও দিতে পারেন। ডিম ভালো করে ফেটে নিয়ে তা দুধে দিন।আর মিশ্রণটি ভালো করে মিশিয়ে নিন।

ধাপ২ঃ

চিকেন ভাজার জন্য ময়দার কোটিং তৈরি করি। ময়দা আর কর্ণফ্লাওয়ার ভালো করে চেলে নিন। তাতেপাপড়িকা পাউডার, সাদা গোলমরিচ ও লাল মরিচ যোগ করি।

এবার ম্যারিনেট করা চিকেন গুলোকে ভালো করে হাত দিয়ে নেড়ে নিন।এরপর শুকনো উপকরণ এর মিশ্রণে ভালো ভাবে হাত দিয়ে চেপে চেপে কোট করুন।পরে একে দুধের মিশ্রণে ডুবিয়ে আবার ময়দার মিশ্রণে কোট করুন।আপনি যত ভালো কোট করবেন চিকেন তত মজার হবে।

এবার সব চিকেন কোট হয়ে গেলে৩৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রায় ডুবো তেলে ভাজতে হবে।মনে রাখবেন তাপমাত্রা যেন খুব কমে না যায়।তাপমাত্রা ৩২০ডিগ্রি তাপমাত্রায় ভিতরে রাখবেন চিকেন দেয়ার পরে ভাজার জন্য।এতে ভাজা ভালো হয়।আর এই চিকেন ফ্রাই হতে লাগবে ৮-১০ মিনিট

টিপসঃ অবশ্যই তাপমাত্রা খেয়াল রাখতে হবে ভাজার সময়। না হয় চিকেন ভাজি হবে না ঠিক ভাবে।ম্যারিনেট এর সময় বেশি হলে তাতে মশলা ভালো করে ঢুকে। প্রতিটি পদ্ধতি সঠিকভাবে মেনে চললে চিকেন ফ্রাই ভালো হবে। আর অবশ্যই চামড়াসহ চিকেন নিবেন।

চিলি চিকেন রেসিপি দেখে নিন!

অথেন্টিক চিকেন চাপ বানানোর রেসিপি!

তো আজকের chicken fry রেসিপিটা এপর্যন্তই।এটি মূলত টিপিক্যাল চিকেন ফ্রাই রেসিপি। অনেক সহজ প্রসেসে এখানে সেখানো হয়েছে।

ট্যাগ লাইনঃচিকেন ফ্রাই,কেএফসি চিকেন ফ্রাই,মুচমুচে চিকেন ফ্রাই,ঝটপট চিনেক ফ্রাই তৈরি

আশা করি ফুডলিংক বিডির এই চিকেন ফ্রাই রেসিপি টি ভালো লেগেছে। কোন প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে কমেন্ট বক্সে দয়া করে জানাবেন।
ও হাঁ, আপনিও কিন্তু এরকম সুন্দর সুন্দর ফুড রেসিপি লিখতে বা ইউটিউবে রান্নার ভিডিও বানাতে পারেন! তাহলে এখনি যোগাযোগ করুন।
আরও ভালো জানার জন্য ইউটিউব চ্যানেল থেকে ঘুরে আসতে পারেন। আশা করি আইসক্রিম বানানোর ভিডিওটি দেখে আরও সহজে
বাসায় রান্না করতে পারবেন হোটেলের চেয়েও সুন্দর করে। প্রবন্ধটি সংরক্ষণে রাখতে আপনার সোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করে রাখুন।
যাতে প্রয়োজনে খুজে পেতে সহজ হয়। সাথে থাকার জন্য অন্তরের অন্তরস্থল থেকে এক রাশ প্রিতি ও ভালোবাসা রইল।

লেখাটি আবার পড়তে পড়তে চান? আপনার সোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.