ফ্রাইড রাইস রেসিপি

ফ্রাইড রাইস রেসিপি-মহূর্তেই তৈরি করুন মজাদার খাবার!

ঝটপট রান্নার কথা উঠলে চাইনিজ খাবারের নাম সবার আগে মনে পড়ে। আর আজ তেমনই একটি খাবার “ফ্রাইড রাইস রেসিপি” সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক!
যেটি কিনা আমাদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং সুপরিচিত একটি খাবার। সচরাচর বাইরে খেয়ে থাকি, সে কারণে অনেক সময় স্বাস্থ্যসম্মত
নাও হতে পারে। তাই আজকের আর্টিকেলে বাড়িতে বসে কিভাবে সুস্বাদু এবং মজাদার ফ্রাইড রাইস তৈরি করা যায় তা বর্ণনা করা হবে।
কথা না বাড়িয়ে চলুন জেনে নেই ফ্রাইড রাইসের সংক্ষিপ্ত প্রস্তুত প্রণালী ।

যেসকল উপকরণ প্রয়োজন হবে

  • পোলাওয়ের চাল  প্রয়োজন পড়বে ৫০০ গ্রামের মতো
  • মুরগির মাংস – ছোট ছোট করে কাটা- ১ কাপ
  • মটরশুটি
  • বরবটিকুচি 
  • আদা রসুন কুচি
  • ১৫০ গ্রাম বাসমতি চাল
  • ২টি এলাচ
  • ২টি লবঙ্গ
  • ১টি তেজপাতা
  • ১ ইঞ্চি দারুচিনি
  • স্বাদমতো গোলমরিচ গুঁড়ো
  • ১০০ গ্রাম সাদা তেল
  • স্বাদমতো লবণ আর চিনি
  • ১টি বড় গাজর
  • ৬টি বিন্স
  • ১টি মুরগীর ডিম
  • পরিমান মতো কাজু বাদাম ও কিশমিশ
  • পরিমাণমতো পেঁয়াজ কুচি
  • ১ চা চামচ গাওয়া ঘি
  • প্রয়োজন মতো পানি
  • লেবু দুইটি

যে ভাবে প্রস্তুত করবেন  ফ্রাইড রাইস

প্রথমে চাল ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। এরপর চাল কিছু সময়ের জন্য শুকাতে দিতে হবে। চুলায় একটি পাতিলে কিছুটা পানি গরম করতে হবে এবং সেই গরম পানিতে চালগুলো ছেড়ে দিতে হবে। পানি গরম হয়ে আসলে চালগুলো ফুটতে শুরু করবে। ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ চাল সিদ্ধ হয়ে আসলে কড়াই থেকে নামিয়ে ফেলুন।
তবে একটা জিনিস সবসময় খেয়াল রাখবেন সচরাচর আমরা যেমন ভাত সিদ্ধ করি  তেমনটা করা যাবে না। 

ফ্রাইড রাইস রেসিপি তৈরির ফাইনাল পর্ব

এরপর টুকরো করে রাখা মাংস গুলোতে সামান্য লবণ মেখে সেগুলো কি সিদ্ধ করে নিতে হবে। আপনি চাইলে কিছু সবজি  যুক্ত করতে পারেন। সবজি গুলোকে ভালো ভাবে ধুয়ে হালকা ভাব  দিয়ে নিতে হবে। অতপর, আলাদা একটি পাত্রে একটি ডিম ফেটে গরম তেলে ভেজে  ঝুড়ি করে রাখতে হবে। 

এবার হাঁড়িতে কিছুটা তেল গরম করে নিয়ে  তার  ভেতরে পেঁয়াজ আদা এবং রসুন সামান্য ভেজে নিতে হবে। কিছুটা বাদামি বর্ণ ধারণ করার পর  নামিয়ে ফেলতে হবে।অতঃপর আরেকটি পাত্রে মাংসের ঝুরি করা কিমা গুলো ভালোভাবে কষাতে হবে।এরপর তার ভেতরে সিদ্ধ করে রাখা ভাত এবং সবজি দিয়ে  দুই থেকে তিন মিনিটের মতো নড়াচড়া করতে হবে। অতঃপর কিছুটা কাঁচা মরিচ যোগ করে সেগুলো দুই থেকে তিন মিনিটের মতো  নাচতে হবে। ঠিক ততক্ষন পর্যন্ত নাড়তে হবে যতক্ষণ পর্যন্ত না সেগুলো কুঁচকে যায়। তারপর ধীরে ধীরে সেগুলোর ভেতরে পেঁয়াজ পাতা কুচি, ডিমের  ঝুড়ি, ফ্রাইড রাইস মসলা, এবং গোলমরিচ যোগ করে ভালোভাবে আরো দুই মিনিট দমে রাখতে হবে।

দুই মিনিট পর  চুলা থেকে নামিয়ে পরিবেশন করুন গরম গরম ফ্রাইড রাইস। ডেকোরেশন করুন  নিজের মতো করে ! এ ছাড়াও গুগলে সার্চ দিতে পারেন নিচের সিমিলার রেসিপি গুলো বানানোর জন্য এগ/মিক্সড/ভেজ ফ্রাইড রাইস রেসিপি, ফ্রাইড রাইস বেঙ্গলি, ঝরঝরে ফ্রাইড রাইস রেসিপি, চিকেন ফ্রাইড রাইস রেসিপি।

ফ্রাইড রাইস তৈরির ৫ টি গুরুত্বপূর্ণ টিপস

  • চাল বাছাই করবেন ভালো ভাবে। বাসমতি বা চিনিগুড়া চাল ভালো হয় ফ্রাইড রাইসের জন্য। আপনি কালোজিরা চাল নিতে পারেন।
  • রান্নার আগে কিছুক্ষণ চাল ভিজিয়ে রাখুন। এতে চাল সিদ্ধ করতে সময় কম লাগে।
  • সিদ্ধ করার সময় চাল অবশ্যই পানিতে তেল ও লবণ দিবেন। তাতে রান্নাতে সুবিধা হয়।
  • কাঠের চামচ দিয়ে নাড়লে ভালো। আর চাল বেশি না নেড়ে হালকা হাতে নাড়বেন। এতে চাল ভেংগে যাবে না। আর চাল ঝড়ঝড়ে হবে।

প্রয়োজনীয় সর্তকতা

রান্নার সময় চালের দিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে। কারন চালের উপর নির্ভর করে এই খাবারের স্বাদ। আর তাই রান্নার পদ্ধতি অনুযায়ী চাল সেদ্ধ করতে হবে।
আর হালকা হাতে চাল নাড়তে হবে। না হয় তা দলা বেঁধে যাবে।চুলার আঁচ মিডিয়ায় থেকে লো রাখবেন।যেন রান্না ভালো করে হয়। চাল দেয়ার সময় খেয়াল রাখবেন তা আধা সিদ্ধ ভালো করে হয়েছে কিনা।না হয় চাল খেতে দানাদার হবে।

ট্যাগ লাইনঃফ্রাইড রাইস, ঝটপট রেসিপি, চাইনিজ ফ্রাইড রাইস, মজাদার ফ্রাইড রাইস,ঘরে তৈরি ফ্রাইড রাইস রেসিপি।

আশা করি ফুডলিংক বিডির এই ফ্রাইড রাইস টি ভালো লেগেছে। কোন প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে কমেন্ট বক্সে দয়া করে জানাবেন। তাছাড়া ফ্রাইড রাইসের সাথে মুখোরোচক চিকেন ফ্রাই তৈরি রেসিপিও দেখে নিতে পারেন।
ও হাঁ, আপনিও কিন্তু এরকম সুন্দর সুন্দর ফুড রেসিপি লিখতে বা ইউটিউবে রান্নার ভিডিও বানাতে পারেন! তাহলে এখনি যোগাযোগ করুন।
আরও ভালো জানার জন্য ইউটিউব চ্যানেল থেকে ঘুরে আসতে পারেন। আশা করি ফ্রাইড রাইস বানানোর ভিডিওটি দেখে আরও সহজে
বাসায় রান্না করতে পারবেন হোটেলের চেয়েও সুন্দর করে। প্রবন্ধটি সংরক্ষণে রাখতে আপনার সোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করে রাখুন।
যাতে প্রয়োজনে খুজে পেতে সহজ হয়। সাথে থাকার জন্য অন্তরের অন্তরস্থল থেকে এক রাশ প্রিতি ও ভালোবাসা রইল।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *